টপ নিউজ ১ ঢাকা রাজনীতি সারা দেশ

শেষ খেলা আমরাই খেলব ও জিতব : শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

আগামী অল্প কিছুদিনের মধ্যেই বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল রাষ্ট্রে পরিণত করতে বিদেশের একটি হাসপাতালে রোগী সেজে ভর্তি হয়ে গোপন সভা করছে। আমি তাদের কিছু নামও জানি, তবে এখন প্রকাশ করব না। খুব শিগগিরই আঘাত করা হবে, হতে পারে তিন থেকে চার মাসের মধ্যেই তারা আঘাত করবে। এমনকি বাইরের দেশ থেকে আশ্রয় নেওয়া শক্তিকে তারা ব্যবহার করছে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করতে।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের জেলা পরিষদ এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে এলজিইডি অফিসের সামনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

একটি দেশকে অস্থিতিশীল করতে ১৬ কোটি মানুষের দরকার হয় না, ১৬ জনই যথেষ্ট, উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, বাংলাদেশ যদি অস্থিতিশীল হয়, তবে কি আমি শামীম ওসমান একা ক্ষতিগ্রস্ত হব? আপনি আমি এবং আপনার আমার পরবর্তী প্রজন্ম ক্ষতিগ্রস্ত হব। আমি বলছি না আমি পারফেক্ট, আওয়ামী লীগ করলেই পারফেক্ট হয়ে যাব আরা না করলে পারফেক্ট হব না, এমন নয়। তবে একটি কথা বলতে চাই, শেখ হাসিনাকে আগামী দিনে আমাদের খুব দরকার।

সংসদ সদস্য বলেন, দেশটা এগিয়ে গিয়েছিল পুরোপুরি। প্রথম ধাক্কা এল করোনার, তারপর বন্যার, এখন পৃথিবীতে ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের ধাক্কা। এই ধাক্কায় পৃথিবী টালমাটাল হয়ে গেছে। বাংলাদেশ পৃথিবীর বাইরের কোনো দেশ না, এই সুযোগটা অনেকে নিতে চায়। আমি লজ্জা পাই যখন কোনো জাতীয় পর্যায়ের রাজনীতিবিদ হাসতে হাসতে বলেন, বাংলাদেশ এখন শ্রীলঙ্কা হতে যাচ্ছে। কিছুদিন পরেই দেখা যাবে তারা কোন পথে পালায়। এটা কী ধরনের অসভ্যতা?

বাংলাদেশ যদি শ্রীলঙ্কা হয়ে যায়, একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে খুশি হওয়ার তো কথা না। তবে রাজনীতিবিদ হিসেবে তারাই খুশি হয় যারা আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারে।

প্রভাবশালী এই আওয়ামী লীগার বলেন, বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা চালানোর চেষ্টা করা হয়, কারা এই দাঙ্গার চেষ্টা করে? টার্গেট তারাই হয়, যারা বুঝে বেশি। টার্গেট তারাই হয়, যারা প্রতিরোধ গড়ে বেশি। নারায়ণগঞ্জ ঢাকার খুব কাছের একটি জেলা, নারায়ণগঞ্জ অতীতেও ভূমিকা রেখেছে, এখনো রাখছে এবং আগামীতে আরও ব্যাপকভাবে রাখবে।

যারা ষড়যন্ত্র করছেন, দেশে ও বিদেশে এবং যারা ভবছেন ষড়যন্ত্র করে সফল হবেন, আমি তাদের উদ্দেশে বলব, শয়তান সারাজীবনই শয়তানি করে, কিন্তু শয়তান কখনো সৃষ্টিকর্তার সঙ্গে পারে না, আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের সঙ্গে পারে না। আপনারাও পারবেন না, কারণ শেখ হাসিনার ওপর আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের রহমত আছে। তবে আপনাদের উদ্দেশে বলতে চাই, আমরাও জবাব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত আছি এবং সামনে খুব কঠিনভাবে জবাব দেওয়া হবে। তখন যদি গর্তের ভেতর ঢুকে গিয়ে কেউ কেউ মনে করেন, আমাদের সঙ্গে মিলেমিশে আছেন এবং আমাদের কারও কারও ছত্রচ্ছায়ায় আছেন, লাভ হবে না। এই গর্তের ভেতরে হাত ঢুকিয়ে বিষাক্ত সাপগুলোকে টেনে টেনে বের করা হবে এবং এই কারণে বের করা হবে যেন আমাদের আগামী প্রজন্মকে আমাদের মতো আফসোস করতে না হয়।

ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের এই পোড়খাওয়া নেতা বলেন, আমরা যারা বঙ্গবন্ধুহীন বাংলাদেশে শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে রাজনীতি করতে এসেছিলাম ছাত্রাবস্থায় কিছু না বুঝে, বাসায় খাবার ছিল না, তিন বেলার মধ্যে এক বেলা ভাত খেতাম বাংলাদেশের অন্যতম ধনী পরিবারের সন্তান হয়ে। বড় ভাই ছিলেন কাদের বাহিনীতে, মেঝ ভাই বাস চালাতেন। ময়মনসিংহ থেকে মুরগি কিনে এনে রাস্তার পাড়ে মুরগি বেচতেন। সেই পরিবারের সন্তান আমরা, মসজিদের ভেতর বোনের বিয়ে দিয়েছি।

যারা ষড়যন্ত্র করছেন, তাদের বলব, সাবধান! এবার শেখ হাসিনা বললেও আমরা থামব না, পাল্টা আঘাত এত জোরে করা হবে যে আপনাদের পায়ের তলে মাটি থাকবে না, এটা মাথায় রাখবেন। যতই ছত্রচ্ছায়ায় থাকেন না কেন, শেষ খেলাটা আমরাই খেলব এবং জিতব ইনশা আল্লাহ।

এলজিইডি নারায়ণগঞ্জ কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম তুহিনের সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিফাত ফেরদৌস, এলজিইডি নারায়ণগঞ্জের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল বাসেদ, জ্যেষ্ঠ সহকারী প্রকৌশলী আলী হায়দার খান প্রমুখ। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জের পাঁচ উপজেলার প্রকৌশলীরা  উপস্থিত ছিলেন।

সাদে/সবি/নেহাল

আরও সংবাদ