বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ফেসবুকের ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

ডেক্স রির্পোট: বর্তমান সময়ে দুনিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ২০০৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি শুভ সূচনা করে যোগাযোগ মাধ্যমের এই প্ল্যাটফর্মটি।
যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির ডরমিটরে ‘দ্য ফেসবুক’ নামে সাইটটির শুভ সূচনা হয়। এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের হাত ধরে ফেসবুকের যাত্রা শুরু। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার ম্যানলো পার্কে অবস্থিত ফেসবুকের সদর দফতর।
ফেসবুকের বর্তমান ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১২০ কোটি। যা বৃহত্তর একটি দেশের মোট জনসংখ্যার চাইতেও ঢেড় বেশি! চাঞ্চল্যকর ব্যপারা হলো প্রতি মিনিটে গড়ে এক সঙ্গে ফেসবুকে লগইন করে থাকেন দুই হাজার মানুষ।
জরিপে দেখা গেছে, প্রতি মাসে অন্তত একবার হলেও ফেসবুক ব্যবহার করেন সারা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার সাত ভাগের এক ভাগ মানুষ।
বিপুল সংখ্যক ব্যবহারকারীর ফেসবুকের দেয়ালে সর্বশেষ হালনাগাদ, ছবিসহ কন্টেন্ট রয়েছে এক ট্রিলিয়নেরও বেশি। আর এসব কন্টেন্টকে ফেসবুকের গ্রাফ সার্চের মাধ্যমে সাজানোর চেষ্টাও করা হচ্ছে।
ফেসবুকের প্রথম মুখ হচ্ছেন বিখ্যাত অভিনেতা আল পাচিনো। ফেসবুক যখন প্রথম চালু  হয় তখন এর বাইনারী কোডের পেছনে আবছাভাবে একটি মুখ দেখা যেত। সে মুখখানা তার।
১০ বছর শেষে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য প্রায় ১৫ হাজার কোটি ডলার! ২০০৪ সালে ফেসবুকে প্রথম অর্থ লগ্নি করে পে-প্যাল নামক ওয়েবসাইট। এর সিইও ছিলেন পিটার থিয়েল। আর প্রথম অর্থলগ্নি করা হয় ৫০ হাজার ডলার মাত্র!
ফেসবুকের জন্য প্রথম ডোমেইন কিনতে খরচ করা হয়েছিলো ২ লক্ষ মার্কিন ডলার। জাকারবার্গের পক্ষ হতে www.facebook.com ডোমেইনটি ক্রয় করেন ন্যাপস্টার নামক পডকাস্টার সাইটের কো-ফাউন্ডার শন পার্কার।
ফেসবুকের অন্যতম প্রধান প্রকৌশলী অ্যান্ড্রিউ বসওয়ার্থ বলেন, ‘প্রথমে ফেসবুকের যে লাইক বাটনটি রয়েছে, এটিকে অ্যাওসাম (awesome) বাটন হিসেবে চালু করার কথা হয়েছিলো। কিন্তু পরবর্তীতে তা লাইক বাটন হিসেবেই সবার কাছে বেশী জনপ্রিয়তা লাভ করে।’
সমগ্র বিশ্বের ব্যবহারকারীদের প্রায় ৩০০ পেটাবাইট তথ্য ধারন করে আছে ফেসবুক। আর এক পেটাবাইট হচ্ছে এক মিলিয়ন গিগাবাইটের সমান।
সমগ্র বিশ্বের মুঠোফোন প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রায় ৪৬ শতাংশ ব্যবসা বৃদ্ধি ও প্রচারে সাহায্য করে ফেসবুক।
১ ফেব্রুয়ারির ২০১৯ সালের এক হিসাব মতে, ১৫ বছর শেষে তখন প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য ছিলো ৪৭২.৯৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (৪৭ হাজার ২৯৩ কোটি ডলার)।
২০১৯ সালে গোপনীয়তা রক্ষা না করা এবং ক্ষতিকর কন্টেন্ট ছড়ানোয় ভূমিকা রাখার অভিযোগ ওঠে ফেসবুকের বিরুদ্ধে। তবুও দিন দিন বেড়েই চলেছে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা। ফেসবুকের শুভ জন্মদিনে ব্যবহারকারীদের আশা, সব অভিযোগের অবসান ঘটিয়ে আরো এগিয়ে যাবে বিশাল এই প্ল্যাটফর্মটি।
নেহাল আহম্মেদ প্রান্ত  / সবুজ বাতা

আরও সংবাদ