অন্যান্য রংপুর রাজনীতি

ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হলেন ডাকসুর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভোট পাওয়া ঐতিহ্য

এহছানুল হক মাহিম নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের জেলার খানসামার ছেলে রাকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য এবারের নবনির্বাচিত কমিটির সহ সভাপতি হয়েছেন

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে মনোনীত করায় রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য দিনাজপুর খানসামা উপজেলার সরহদ্দ- টংগুয়া গ্রামের সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। উপজেলার স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেন। পরে দিনাজপুরের চেহেল গাজী শিক্ষা নিকেতন থেকে সফলতার সহিত এস এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে দিনাজপুর সরকারি কলেজ থেকে এইচ এস সি পাশ করেন। এরপরে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ইতিহাস বিভাগে ভর্তি হন।

কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থা থেকেই বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও ছাত্রলীগের প্রতি ভালোবাসার জন্ম নেয়। সেই থেকেই ছাত্রলীগের যেকোনো মিছিল-মিটিং অংশগ্রহণ করে কখনও আরো পিছনে ফিরে তাকায়নি রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য। তাঁর বাবা মোজাহারুল ইসলাম বাবুল দীর্ঘদিন থেকে ইউপি সদস্য হিসেবে মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন ও মা প্রাইমারি স্কুল শিক্ষিকা।

কৃষক পরিবার থেকে বেড়ে ওঠা রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য ছিলেন একাধারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক, ঢাবির স্যার সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিনাজপুর জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতির সাবেক সভাপতি, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অমৃতসূর্যের আহ্বায়ক এবং প্রায় সাত বছর ধরে প্রধান আয়োজক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন “কনসার্ট ফর উষ্ণতা”র।

ছাত্রলীগের নব-নির্বাচিত সহ-সভাপতি রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য বলেন, “রাজনীতি মানে আমি বুঝি মানুষের সেবা করা। পদ-পদবীর সুবিধা হলো বিস্তৃত আকারে বড় প্লাটফরমে মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ। বাংলাদেশের ছাত্ররাজনীতি কিংবা জাতীয় রাজনীতিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কিংবদন্তীতুল্য সংগঠন। এই ঐতিহাসিক ছাত্রসংগঠনের কেন্দ্রীয় পর্যায়ে দায়িত্ব পালন অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং এবং ভাগ্যের বিষয়।” তিনি আরো আশা ব্যক্ত করে বলেন, ছাত্র সমাজের অধিকার আদায় এবং গণমানুষের আনন্দ-বিরহ-সংকটে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বরাবরের মতই ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করবে ।

আরও সংবাদ