ঢাকা প্রকৃতি ও পরিবেশ

ঢাকা শহরকে আধুনিকায়ন করতে চারপাশের নদীর ব্যবহার বাড়াতে হবে, সবুজ আন্দোলন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন ঢাকা বিভাগের উদ্যোগে ১২ ডিসেম্বর রাত ৮ টায় ভার্চুয়াল মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মিটিংয়ে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সংগঠনিক সম্পাদক রবিন চৌধুরী। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা মেজর অবসর মাহমুদুর রহমান চৌধুরী, মিটিং উদ্বোধন করেন সংগঠনের উপদেষ্টা সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী আবদুল কুদ্দুস বাদল। প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ঢাকা বিভাগের প্রত্যেকটি জেলা পরিবেশ বিপর্যয়ে কবলিত। বিশেষ করে ঢাকা শহরের পরিবেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এক্ষেত্রে শহরের চারপাশের নদীবন্দর কে ব্যবহারের উপযোগী করতে হবে, চারপাশে ইটভাটা বন্ধ করতে হবে, পাশাপাশি যত্রতত্র ময়লা ফেলা বন্ধ করতে হবে।

এ্যাড.আবদুল কুদ্দুস বাদল তার বক্তব্যে বলেন, আমাদেরকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। শহরের খাল দখল মুক্ত করতে সরকারকে সহযোগিতা করতে হবে।

প্রধান আলোচক তার বক্তব্যে বলেন, ঢাকা বিভাগের বিশেষ করে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে বায়ুদূষণ রোধে দিনে দুইবার ঝাড়ু ও সপ্তাহে একবার রাস্তা পানি দিয়ে ধৌত করন, প্লাস্টিক জাতীয় পণ্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ ও পাটজাত পণ্যের ব্যবহার নিশ্চিতকরণ, যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা থেকে বিরত থাকা, শব্দ দূষণের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনতে হাইড্রোলিক হর্ন উৎপাদনকারী কারখানা বন্ধ, পতিত জায়গায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন, ঢাকার চারপাশের নদীগুলো গভীরভাবে খনন এবং সিইটিপি ফর্মুলা বাধ্যতামূলক করতে হবে। ফরিদপুর শহর নদীমাতৃক জেলাগুলোর ভাঙ্গনরোধে স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট শাখার সমন্বয়কারী, এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহবায়ক, আব্দুল আজিজ, যুগ্ম আহ্বায়ক, মির্জা পারভেজ, চট্টগ্রাম জেলার সদস্য সচিব, সুলতানা আয়েশা, যশোর জেলা সমন্বয়কারী, রবিউল ইসলাম, ফরিদপুর সদর উপজেলার সমন্বয়কারী, বায়েজিদ হোসেন প্রমূখ।

আরও সংবাদ