খুলনা সারা দেশ

শ্রীপুরে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা হত্যা মামলা

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার শ্রীকোল ইউনিয়নের দাইরপোল-দরিবিলা গ্রামে গত ৬ অক্টোবর মঙ্গলবার আওয়ামীলীগ ও বিএনপি সমর্থকদের মাঝে ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে দরিবিলা গ্রামের বিএনপি সমর্থক মসিয়ার রহমান (৪০) মারাত্বক আহত হয়। মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় আওয়ামীলীগ সমর্থক নারী-পূরুষ এলাকা থেকে ভয়ে পালিয়ে গেলে চালানো হয় শতাধিক বসত বাড়িতে বর্বরচিত ভাংচুর ও লুটপাট। লুটে নিয়ে যায় শতাধিক গরু, মহিষ, গবাদি পশু। এলাকা এখন এক পক্ষ নারী-পূরুষ শূণ্য।

গত ৯ অক্টোবর রাতে মসিয়ার রহমান নিহতের ঘটনায় আসামী করা হয়েছে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত না এমন অনেককেই। এমনই পরিস্থিতিতে ঘটনার সময় গ্রামে না থেকেও মামলার অন্যতম আসামী হয়েছেন বিশ্ব সন্ত্রাস বিরোধী সংগঠন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও মাগুরা জেলা সভাপতি, বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠনের সন্ত্রাস ও মাদক বিরোধী সম্পাদক, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগ শ্রীপুর উপজেলা শাখার সভাপতি, জাতীয় দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার শ্রীপুর উপজেলা প্রতিনিধি, দৈনিক অন্যদৃষ্টি, আন্দোলনের বার্তা, নিউজ ২৪ বিডি নেট অনলাইন পত্রিকার মাগুরা জেলা প্রতিনিধি, জাতীয় দৈনিক ঢাকা প্রতিদিন পত্রিকার (শিক্ষানবিশ) শ্রীপুর উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মহসিন মোল্যা ও তাঁর ষাটর্দ্ধো বৃদ্ধ পিতা শিহাব মোল্যা।

এ বিষয়ে সাংবাদিক মহসিন মোল্যা জানান, আমি আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান। আমি দীর্ঘদিন ধরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং সাংবাদিকতা করে আসছি। আমি গ্রামের নোংরা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। ঘটনার দিন আমার শ্রীকোল বাজারে ডিউটি ছিল, রাতের ডিউটি শেষে সকালে আমি বাজারে আমার নিজের ঔষধ ফার্মেসীতে ছিলাম। আমাকে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। আমি সব সময় আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আশা করি দ্রুত আমাকে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি দেওয়া হবে।

অনুসন্ধানে দেখা যায়, সাংবাদিক মহসিন মোল্যা ঘটনার দিন তাঁর নিজস্ব ঔষুধ ফার্মেসীর দোকানে ছিল। প্রত্যক্ষদর্শী অনেকের সাথে কথা বলেও বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আহম্মেদ মাসুদ এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে ও তাকে পাওয়া যায়নি।

আরও সংবাদ